কার্বোহাইড্রেট ও ফ্যাটের মধ্যে পার্থক্য

কার্বোহাইড্রেট (Carbohydrate):

কার্বোহাইড্রেট বা কার্বোহাইড্রেট হলো জৈবিক অণু যা কার্বন (C), হাইড্রোজেন (H) এবং অক্সিজেন (O) পরমাণু নিয়ে গঠিত হয়। সাধারণত হাইড্রোজেন এবং অক্সিজেন পরমাণুর (পানিতে যেমন) 2:1 অনুপাত থাকে। কার্বোহাইড্রেট, যার গ্রীক ব্যুৎপত্তিটির অর্থ মিষ্টি, এটি হলো জৈব অণু, পার্শ্বীয় পদার্থ, কার্বন, অক্সিজেন (অল্প পরিমাণে) এবং হাইড্রোজেন দ্বারা গঠিত। সরল কথায় এটির স্থূল সংকেত হল C m(H2O)n, যেখানে m এর মান এবং n এর মান ভিন্ন হতে পারে এবং n হল ৩ বা তদূর্ধ্ব সংখ্যা।

কার্বোহাইড্রেট বা কার্বোহাইড্রেট জীবন্ত প্রাণীর মধ্যে অনেকগুলি কার্য সম্পাদন করে। পলিস্যাকারাইডগুলি শক্তি সঞ্চয় এবং কাঠামোগত উপাদান হিসাবে পরিবেশন করে। 5-কার্বন মনোস্যাকচারাইড রাইবোজ কোএনজাইমগুলির একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান এবং RNA হিসাবে পরিচিত জিনগত অণুর পিছনের অংশ সম্পর্কিত ডিওক্সাইরিবোস DNA – এর একটি উপাদান।

ফ্যাট ( Fat):

ফ্যাট ( Fat) বলতে সেই সমস্ত যৌগের শ্রেণীকে বোঝায় যারা সাধারণত জৈব দ্রাবকে দ্রবণীয় কিন্তু পানিতে অদ্রবণীয়। রাসায়নিক গঠন বিবেচনা করলে, স্নেহ পদার্থ হল গ্লিসারল ও ফ্যাটি অ্যাসিডসমূহের ট্রাই-এস্টার। স্বাভাবিক তাপমাত্রায় স্নেহ পদার্থ আণবিক কাঠামো ও উপাদানের উপর নির্ভর করে কঠিন বা তরল আকারে থাকতে পারে। যেসমস্ত স্নেহ পদার্থ স্বাভাবিক তাপমাত্রায় তরল অবস্থায় থাকে, তাদেরকে “তেল” বলা হয়। আর যেগুলি স্বাভাবিক তাপমাত্রায় কঠিন অবস্থায় থাকে সেগুলিকে চর্বি (fat) বলা হয়।

আর লিপিড বলতে উভয়কেই বোঝায়। উল্লেখ্য, তেল বলতে আরও সাধারণভাবে পানির সাথে মিশে না এবং তৈলাক্ত অনুভূত হয়, এরকম যেকোন তরলকেই বোঝানো হতে পারে, যেমন – পেট্রোলিয়াম, হিটিং অয়েল, ইত্যাদি। আমরা অনেক সময়েই ভাবি ফ্যাট মানেই শরীরের জন্য খারাপ তা কিন্তু আসলে নয়। অনেক ধরনের ভাল ফ্যাটও আছে যা আমাদের শরীরের জন্য প্রয়োজনীয়। দুই ধরনের ভাল ফ্যাট আছে একটি হলো মোনোআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড বা মুফা ও পলিআনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড বা পুফা। তাই চর্বিহীন খাবার খেতে গিয়ে তাদের বাদ দিয়ে দিলে হবে বিপদ।

চিকিৎসকদের মতে, স্যাচুরেটেড ফ্যাটও পুরোপুরি বাদ দেয়ার দরকার নেই। খাবারের মোট ক্যালোরির ১০ শতাংশের মতো স্যাচুরেটেড ফ্যাট থেকে এলে তাতে কোনো ক্ষতি হয় না। বরং শরীর ভাল রাখতে বন্ধ করতে হয় ট্রান্স ফ্যাট।

কার্বোহাইড্রেট ও ফ্যাটের মধ্যে পার্থক্য:

কার্বোহাইড্রেট হলো জৈবিক অণু যা কার্বন (C), হাইড্রোজেন (H) এবং অক্সিজেন (O) পরমাণু নিয়ে গঠিত হয়। কার্বোহাইড্রেট ও ফ্যাটের মধ্যে পার্থক্য নিম্নরূপ-

১। কার্বোহাইড্রেটগুলি জটিল শর্করা। অন্যদিকে ফ্যাট হলো লিপিডের বিল্ডিং ব্লক।

২। কার্বোহাইড্রেট পানিতে দ্রবণীয়। অন্যদিকে ফ্যাটগুলি পানিতে দ্রবণীয় হয় না। তারা ইথানল, ইথার, ক্লোরোফর্ম এবং অন্যান্য অজৈব যৌগগুলিতে দ্রবণীয়।

৩। এক গ্রাম শর্করা 4 কিলোক্যালরি শক্তি সরবরাহ করে। অন্যদিকে এক গ্রাম চর্বি 9 কেসিএল শক্তি সরবরাহ করে।

৪। কার্বস এনজাইম অ্যামাইলেজ দ্বারা হজম হয়। অন্যদিকে ফ্যাটগুলি এনজাইম লাইপেজ এবং পিত্ত দ্বারা হজম হয়।

৫। প্রতিদিনের মোট ডায়েট খাওয়ার ০ থেকে 7০০ শতাংশ কার্বসের প্রস্তাবিত দৈনিক গ্রহণের পরিমাণ হলো ১৫ থেকে ২০ শতাংশ।